কুমিল্লার সাথে একমত অন্য দলগুলোও - Comilla

তাজা খবর

Home Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

শুক্রবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৯

কুমিল্লার সাথে একমত অন্য দলগুলোও

বিপিএলের লভাংশ চেয়ে আসছে প্রায় প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। ঢাকা ডায়নামাইটস বাদে বিপিএলের যে সকল ফ্র্যাঞ্চাইজি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল তারা সবাই বিপিএলের লভাংশ দাবি করেছে।
বিপিএলের শিরোপাধারী কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স তাদের মধ্যে অন্যতম। আর এ বিষয়ে কুমিল্লার সাথে একমত অন্য দলগুলোও। কুমিল্লার স্পষ্ট কথা, বিপিএলের লভাংশ ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দিতে হবে। তাদের কাছে বিপিএল লস প্রজেক্ট! এজন্য আগামী বছরের বিপিএলে তারা থাকবে কিনা তা এখনও চূড়ান্ত করতে পারেনি।
বুধবার বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ঘন্টা দেড়েকের বৈঠক শেষে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের চেয়ারম্যান নাফিসা কামাল গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন।
এসময় তিনি বলেন, ‘লভাংশ নিয়ে আমরা প্রথমে আলোচনা করেছি। আমরা পুরোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। আমি মালিক হিসেবে সবচাইতে পুরোনো। আমি সিলেটের সাথে ছিলাম। এখন পর্যন্ত আমরা ব্রেক ইভেনে আসতে পারিনি। কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি ব্রেক ইভেনে আসতে পারেনি। এটা আমাদের সবার জন্য লস প্রজেক্ট।
আমি চিন্তা করছি আগামী বছর বিপিএলে থাকব কী না। এই অবস্থায় শুধুই লাভবান হচ্ছে বিসিবি। অবশ্যই আমরা লাভের অংশ হতে চাইব। আমরা অনেক বড় একটি স্টেক হোল্ডার। এখানে পুরোপুরি ওয়ান সাইডেড টুর্নামেন্ট হচ্ছে। আমরা কিছুই পাচ্ছি না শুধু দিয়েই যাচ্ছি।’
নাফিসা কামাল মনে করেন, লাভের একটি নির্দিষ্ট অংশ বিসিবি থেকে পাওয়া গেলে কম বাজেটের দলগুলো ভালোমানের খেলোয়াড় নিতে আগ্রহী হবে এবং বিপিএলের মান আরও উচুঁতে যাবে। তিনি ধারণা দিয়েছেন, গ্রাউন্ড রাইটস কিংবা টিকিট রাইটসের অংশীদার করলেও ফ্র্যাঞ্চাইজিরা লাভবান হবে।
পাশাপাশি বিপিএল সবশেষ আসরের মডেল অনুযায়ী আয়োজন করার জোর দাবি জানিয়েছেন নাফিসা কামাল, ‘আমাদের পয়েন্ট হল যদি বিপিএলের ইতিহাসে গত আসরটিকে সবচাইতে সফল বলা হয় তাহলে আমি কেন সেই মডেলটি বদলাতে যাব?
বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল জানিয়েছে, চুক্তি নবায়ন না হওয়া পর্যন্ত কোনো খেলোয়াড়কে দলে নেওয়া যাবে না। নিলে সেটির বৈধতা থাকবে না। এ কারণে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে রংপুর রাইডার্সের যে চুক্তি হয়েছে, সেটি নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।
শুধু রংপুর নয়, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে মুশফিকুর রহিমের। তামিম ইকবালকে নিয়েছে খুলনা। সে হিসেবে কুমিল্লার সঙ্গে মুশফিকের চুক্তির বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে। এ নিয়ে নাফিসা বললেন, ‘মুশফিকের সঙ্গে আমরা চুক্তি করেছি বিশ্বকাপের মাঝে। তামিম তার আগে গেছে (খুলনায়)। এখন এসব সাজেশন আসছে একটি ইস্যুতে (সাকিবের বিষয়টি ইঙ্গিত করে)। সেটির জন্য আলাদা সমাধান বের করা উচিত। পুরো কাঠামো বদলানোর প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না।’
আমরা ওই মডেলটিই কেন চালিয়ে যাব না? আমাদের বোর্ড সভাপতি বলেছেন বিপিএলে কোন নিয়ম পরিবর্তন হয়নি ও হয় না। তো আমরা ওনার কথা সম্মান করতে চাই। আমরা সফল মডেলের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চাই।’
বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল থেকে চিঠি পাওয়ার পরই দল গোছানোর কাজ করছে কুমিল্লা। সেই সূত্রে মুশফিককে বিশ্বকাপের মাঝপথে দলে ভিড়িয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। কিন্তু বিপিএলের আয়োজরা এরই মধ্যে ঘোষণা দিয়েছে খেলোয়াড়দের দলবদল অবৈধ। নতুন নিয়মের পরই দলবদল করতে পারবে খেলোয়াড়রা।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post Bottom Ad

Responsive Ads Here

Pages